জানা অজানালাইফ স্টাইল

মশার উপদ্রব কমান পাঁচটি সহজ উপায়ে

বর্তমানে আমাদের দেশে মশা এক যন্ত্রণাদায়ক নাম। ঘরে বাইরে সবখানেই মশার যন্ত্রনায় অতিষ্ট সবাই, বিশেষ করে শহরবাসী। মশা রোগজীবাণুর সংক্রমণ করে এমনকি এই মশা অনেক সময় মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে। মশার উপদ্রব কমান পাঁচটি সহজ উপায়ে।

মশার মাধ্যমে ম্যালেরিয়া, চিকুনগুনিয়া, ডেঙ্গু, ফাইলেরিয়া, পীত জ্বর, জিকা ভাইরাস সহ প্রভৃতি মারাত্মক রোগের সংক্রমণ ঘটে থাকে। বর্তমানে স্প্রে, কয়েল, অ্যারোসল কোনও কিছুতেই মশা তাড়ানো সহজ নয় এগুলো যেন মশার পছন্দের জিনিসে রূপান্তরিত হয়েছে।

আপনি চাইলে এই সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে কিছু ঘরোয়া টোটকার ব্যবহার করতে পারেন। চলুন জেনে নেই এমন কিছু ঘরোয়া উপায় যার সাহায্যে আপনি কম সময়ে মশা তাড়াতে সক্ষম হবেন।

মশার উপদ্রব কমান পাঁচটি সহজ উপায়ে


আরোও পড়ুনঃ যেভাবে ই-পাসপোর্ট করবেন খুব সহজেই


আসুন জেনে নেই ৫টি সহজ উপায় যেভাবে মশা তাড়ানো যায়-

  • তেলের মিশ্রণঃ একটি পাত্রে নারকেল তেল, নিমের তেল, লবঙ্গের তেল, পিপারমেন্ট তেল সমান মাত্রায় মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ একটা বোতলে ঢেলে নিন। রাতে শোয়ার আগে আপনি এই তেল গায়ে মেখে নিন, একটা মশাও আপনার কাছে ঘেঁষবে না।
  • তেজপাতার ধোঁয়াঃ এটির জন্য নিমের তেল, কর্পূর এবং তেজপাতা দরকার। সবার আগে নিমের তেলের সাথে কর্পূর মিশিয়ে একটি স্প্রে বোতলে ঢেলে নিন। এবার তেজপাতার ওপর সেই মিশ্রিত তেল স্প্রে করুন। তারপর তেজপাতাটা পুড়িয়ে দিন। যদি বাড়িতে কোনো স্প্রে বোতল না থাকে তাহলে হাত দিয়ে তেজপাতার ওপর তেল ভালো করে লাগিয়ে নিন। তেজপাতার ধোঁয়ায় মশা মুহূর্তে ঘর ছেড়ে পালাবে।
  • নিমের তেলঃ শোয়ার সময় যেদিকে মাথা রাখবেন তার থেকে একটু দূরে নিমের তেল দিয়ে প্রদীপ জ্বালান। যদি মশার উপদ্রব খুব বেশি হয় তাহলে সেই তেলে একটু কর্পূর মিশিয়ে নিন। এতে করে মশা আপনার ধারে কাছেও আসবে না।

আরোও পড়ুনঃ রাতের বেলা দাঁতের ব্যাথায় কি করবেন


  • ব্যাট হাউসঃ চামচিকারারা ঘণ্টায় কয়েকশত পোকা-মাকড় খেয়ে ফেলে। তাই মশা তাড়াতে ব্যাট হাউস বানাতে পারেন। বারান্দায় কিংবা ভেন্টিলেটরের কাছে রাখুন আর চামচিকাদের কাজ করতে দিন।
  • চা-পাতার ধোঁয়াঃ ব্যবহৃত চা-পাতা ফেলে না দিয়ে ভালো করে রোদে শুকিয়ে নিন। এইভাবে ওই চা পাতা ধুনোর বদলে ব্যবহার করুন। শুকনো চা পাতা পোড়ানো ধোঁয়ায় ঘরের সমস্ত মশা, মাছি পালিয়ে যাবে।

যদিও মশার যন্ত্রণায় অতিষ্ট তবুও এর জন্য যতটুকু সম্ভব চেষ্টা চালাতে হবে, কেননা কয়েলের ধোয়াতেও অনেকের সমস্যা হয়। আর সবসময় তো আর মশারি টানিয়ে থাকা যায় না। তাই চেষ্টা করুন নিজের আশেপাশে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে আর ব্যাবহার করুন উপরের পদ্ধতিগুলো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
%d bloggers like this: