ফুটবল

করোনা কি কেড়ে নেবে নেইমারদের নিশ্চিত শিরোপা?

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এরই মাঝে লিগ ওয়ান স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে। তবে অনেকে এতেই সন্তুষ্ট নন। লিঁওর সভাপতিই যেমন পুরো লিগই বাতিল করার পক্ষে। জ্যাঁ মিশেল অলাস চাচ্ছেন, কোনো চ্যাম্পিয়ন বা অবনমন না হোক। এই পুরো মৌসুমই বাতিল করে আগামী মৌসুমে নতুন করে শুরু হোক সবকিছু।

লিগ ওয়ানকে নিজেদের সম্পত্তি বানিয়ে ফেলেছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই। ২০১৬/১৭ মৌসুমে কিলিয়ান এমবাপ্পে-রাদামেল ফ্যালকাও-বার্নার্দো সিলভাদের অবিশ্বাস্য সেই মোনাকো দলই শুধু পিএসজির লিগ শিরোপা জয় আটকাতে পেরেছিল।

না হলে আগে পরে ঘরোয়া লিগ কাতারের মালিকানাধীন দলটির কাছেই গিয়েছে। সেই ট্রফি এবার হাতছাড়া হওয়ার দশা পিএসজির। না, তিন মৌসুম আগের স্মৃতি ফিরে আসেনি। মোনাকোর মতো এবার কেউই চমক জাগাতে পারেনি। বরং এক ম্যাচ কম খেলেই নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ১২ পয়েন্ট এগিয়ে আছে পিএসজি।

বাকি ১১ ম্যাচেও নেইমার-এমবাপ্পে-ইকার্দিদের টপকানো কারও পক্ষে কঠিন। কিন্তু বাকি ১৯ দলের পক্ষে যা করা সম্ভব হচ্ছে না, সেটাই হয়তো করে দেখাতে পারে করোনাভাইরাস।

অলাসের দাবি, ‘এখন সবচেয়ে যৌক্তিক কাজ হবে সবকিছু বাতিল করে দেওয়া এবং আগামী মৌসুমে সব নতুন করে শুরু করা।’

ফ্রেঞ্চ পত্রিকা লে মন্দেকে আরও বলেছেন, ‘যদি দরকার হয় নিয়মে কী লেখা আছে দেখা যাক। বর্তমান পরিস্থিতিতে এটাই একমাত্র পদ্ধতি। সভাপতিদের কথোপকথনের পর আমি একজন সভাপতি হিসেবে ফ্রেঞ্চ ফুটবলের সভাপতি ও লিগ কমিটির সভাপতিকে বলব এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হোক।’

অলাস চান লিগে এখন পর্যন্ত ক্লাবগুলোর যে অবস্থা সেটা ধরে নিয়েই আগামী মৌসুমে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় খেলার যোগ্যতা অর্জন করুক ক্লাবগুলো। সে অনুযায়ী ক্ষতিগ্রস্ত হবে অলাসের ক্লাবই।

চ্যাম্পিয়নস লিগের নিয়মিত মুখ লিঁও লিগে বর্তমানে সাতে আছে। ফলে তারা ইউরোপা লিগেও খেলার সুযোগ পাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
%d bloggers like this: