লাইফ স্টাইলশিক্ষাঙ্গন

ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন (২)

ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন (২)। ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে চাচ্ছেন? জেনে নিন ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন ও উত্তর। নিজে শিখুন এবং অন্যকে শেখার জন্য উৎসাহিত করুন।

ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন

  • প্রশ্ন : গাড়ি দুর্ঘটনায় পতিত হলে চালকের করনীয় কী ?
    উত্তরঃ আহত ব্যক্তির চিকিৎসা নিশ্চিত করা, প্রয়োজনে নিকটস্থ হাসপাতালে স্থানান্তর করা এবং ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নিকটবর্তী থানায় দুর্ঘটনার বিষয়ে রিপোর্ট করা।
  • প্রশ্ন : আইন অনুযায়ী গাড়ির সর্বোচ্চ গতিসীমা কত ?
    উত্তরঃ হালকা মোটরযান ও মোটরসাইকেলের ক্ষেত্রে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭০ মাইল, মাঝারি বা ভারী যাত্রীবাহী মোটরযানের ক্ষেত্রে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৩৫ মাইল এবং মাঝারি বা ভারী মালবাহী মোটরযানের ক্ষেত্রে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৩০ মাইল।
  • প্রশ্ন : মোটর ড্রাইভিং লাইসেন্স কী ?
    উত্তরঃ সর্বসাধারণের ব্যবহার্য স্থানে মোটরযান চালানোর জন্য লাইসেন্স কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ইস্যুকৃত বৈধ দলিলই মোটর ড্রাইভিং লাইসেন্স।
  • প্রশ্নঃ অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স কাকে বলে ?
    উত্তরঃ যে-লাইসেন্স দিয়ে একজন চালক কারো বেতনভোগী কর্মচারী না হয়ে মোটর সাইকেল, হালকা মোটরযান এবং অন্যান্য মোটরযান (পরিবহনযান ব্যতীত) চালাতে পারে, তাকে অপেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স বলে।

ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন (২)


আরও পড়ুনঃ মনপুরা আইল্যান্ড এ ঘুরে আসুন


  • প্রশ্ন : ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স কত ?
    উত্তরঃ পেশাদার চালকের ক্ষেত্রে ২০ বছর এবং অপেশাদার চালকের ক্ষেত্রে ১৮ বছর।
  • প্রশ্ন : কোন কোন ব্যক্তি ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে?
    উত্তরঃ মৃগীরোগী, উন্মাদ বা পাগল, রাতকানারোগী, কুষ্ঠরোগী, হৃদরোগী, অতিরিক্ত মদ্যপব্যক্তি, বধিরব্যক্তি এবং বাহু বা পা চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে অসুবিধা হয় এমন ব্যক্তি।
  • প্রশ্ন : হালকা মোটরযান কাকে বলে ?
    উত্তরঃ যে-মোটরযানের রেজিস্ট্রিকৃত বোঝাই ওজন ৬,০০০ পাউন্ড বা ২,৭২৭ কেজির অধিক নয়, তাকে হালকা মোটরযান বলে।
  • প্রশ্ন : মধ্যম বা মাঝারি মোটরযান কাকে বলে ?
    উত্তরঃ যে-মোটরযানের রেজিস্ট্রিকৃত বোঝাইওজন ৬,০০০ পাউন্ড বা ২,৭২৭ কেজির অধিক কিন্তু ১৪,৫০০ পাউন্ড বা ৬,৫৯০ কেজির অধিক নয়, তাকে মধ্যম বা মাঝারি মোটরযান বলে।
  • প্রশ্ন : ভারী মোটরযান কাকে বলে ?
    উত্তরঃ যে-মোটরযানের রেজিস্ট্রিকৃত বোঝাই ওজন ১৪,৫০০ পাউন্ড বা ৬,৫৯০ কেজির অধিক, তাকে ভারী মোটরযান বলে।
  • প্রশ্ন : প্রাইভেট সার্ভিস মোটরযান কাকে বলে ?
    উত্তরঃ ড্রাইভার ব্যতীত আটজনের বেশি যাত্রী বহনের উপযোগী যে-মোটরযান মালিকের পক্ষে তার ব্যবসা সম্পর্কিত কাজে এবং বিনা ভাড়ায় যাত্রী বহনের জন্য ব্যবহৃত হয়, তাকে প্রাইভেট সার্ভিস মোটরযান বলে।
  • প্র্রশ্নঃ ট্রাফিক সাইন বা রোড সাইন (চিহ্ন) প্রধানত কত প্রকার ও কী কী ?
    উত্তরঃ ট্রাফিক সাইন বা চিহ্ন প্রধানত তিন প্রকার।
    ক. বাধ্যতামূলক, যা প্রধানত বৃত্তাকৃতির হয়,
    খ. সতর্কতামূলক, যা প্রধানত ত্রিভুজাকৃতির হয় এবং
    গ. তথ্যমূলক, যা প্রধানত আয়তক্ষেত্রাকার হয়।
  • প্রশ্ন : লাল বৃত্তাকার সাইন কী নির্দেশনা প্রদর্শন করে ?
    উত্তরঃ নিষেধ বা করা যাবে না বা অবশ্যবর্জনীয় নির্দেশনা প্রদর্শন করে।
  • প্রশ্ন : নীল বৃত্তাকার সাইন কী নির্দেশনা প্রদর্শন করে ?
    উত্তরঃ করতে হবে বা অবশ্যপালনীয় নির্দেশনা প্রদর্শন করে।
  • প্রশ্ন : লাল ত্রিভুজাকৃতির সাইন কী নিদের্শনা প্রদর্শন করে ?
    উত্তরঃ সতর্ক হওয়ার নির্দেশনা প্রদর্শন করে।
  • প্রশ্ন : নীল রঙের আয়তক্ষেত্র কোন ধরনের সাইন ?
    উত্তরঃ সাধারণ তথ্যমূলক সাইন।
  • প্রশ্ন : সবুজ রঙের আয়তক্ষেত্র কোন ধরনের সাইন?
    উত্তরঃ পথনির্দেশক তথ্যমূলক সাইন, যা জাতীয় মহাসড়কে ব্যবহৃত হয়।
  • প্রশ্ন : কালো বর্ডারের সাদা রঙের আয়তক্ষেত্র কোন ধরনের সাইন?
    উত্তরঃ এটিও পথনির্দেশক তথ্যমূলক সাইন, যা মহাসড়ক ব্যতীত অন্যান্য সড়কে ব্যবহৃত হয়।
  • প্রশ্ন : ট্রাফিক সিগন্যাল বা সংকেত কত প্রকার ও কী কী ?
    উত্তরঃ ৩ (তিন) প্রকার। যেমন- ক. বাহুর সংকেত, খ. আলোর সংকেত ও গ. শব্দ সংকেত।
  • প্রশ্ন : ট্রাফিক লাইট সিগন্যালের চক্র বা অনুক্রমগুলি কী কী ?
    উত্তরঃ লাল-সবুজ-হলুদ এবং পুনরায় লাল।
  • প্রশ্ন : লাল, সবুজ ও হলুদ বাতি কী নির্দেশনা প্রদশন করে ?
    উত্তরঃ লালবাতি জ্বললে গাড়িকে ‘থামুনলাইন’এর পেছনে থামায়ে অপেক্ষা করতে হবে, সুবজবাতি জ্বললে গাড়ি নিয়ে অগ্রসর হওয়া যাবে এবং হলুদবাতি জ্বললে গাড়িকে থামানোর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

আরোও পড়ুনঃ ড্রাইভিং লাইসেন্সের লিখিত পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন (১)


আমরা চেষ্টা করছি আরো প্রশ্ন ও উত্তর সংগ্রহ করে আপনাদের কাছে উপস্থাপন করতে, যাতে করে আপনারা খুব সহজেই আপনাদের লাইসেন্স টি পেতে পারেন আর ভালোভাবে পরীক্ষা দিতে পারেন।

ভালো লাগলে অবশ্যই সকলের সাথে শেয়ার করবেন। কারন আপনার একটি শেয়ার এর কারণে অনেকের উপকার হবে। আমাদের পরবর্তী আর্টিকেল এর জন্য অপেক্ষা করুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
%d bloggers like this:

Adblock Detected

Please Unblock Your Adblocker!