জাতীয়

২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বাংলাদেশে আসছে বৃহস্পতিবার

২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বাংলাদেশে আসছে বৃহস্পতিবার। ভারত থেকে বাংলাদেশে আগামী বৃহস্পতিবার টিকা আসবে। ভারতীয় কূটনৈতিক সূত্র আজ মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছে। ভারত উপহার হিসেবে করোনাভাইরাসের যে ২০ লাখ ডোজ টিকা পাঠাচ্ছে, তা আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে পৌঁছাবে।

আজ দুপুরে (মঙ্গলবার) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে সাংবাদিকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ফ্লাইট শিডিউল অনুযায়ী ভারত থেকে বাংলাদেশে টিকা আসবে। সেটা আগামীকালও হতে পারে, পরের দিনও হতে পারে। ফ্লাইট শিডিউল এখনো জানা যায়নি।

২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বাংলাদেশে আসছে বৃহস্পতিবার

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের বলেন, এসব টিকা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিএমএসডি, ইপিআই এবং তেজগাঁও হেলথ কমপ্লেক্সের কোল্ড স্টোরেজে সংরক্ষণ করা হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরোও বলেন, শুরুতে ইউনিয়ন পর্যায়ে টিকা দেওয়া হবে না। টিকা দেওয়া হবে উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে। প্রথম আসা টিকা দেওয়া শুরু হবে ঢাকায়।

সরকারিভাবে বাংলাদেশ ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার তিন কোটি ডোজ কিনছে। যার প্রথম চালানে ৫০ লাখ ডোজ টিকা ২৫ জানুয়ারির মধ্যে দেশে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।


আরোও পড়ুনঃ ডেঙ্গু ও করোনাভাইরাস এর উপসর্গের মধ্যে পার্থক্য


এর বাইরে উপহার হিসেবে যে ২০ লাখ ডোজ টিকা ভারত পাঠাচ্ছে, তাও সেরাম ইন্সটিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ডের টিকা। মহামারীর সঙ্কটে প্রতিবেশী দেশের জন্য শুভেচ্ছার নিদর্শন হিসেবে এই টিকা ভারত দিচ্ছে।

খুরশীদ আলম জানান, সরকারের কেনা ৩ কোটি ডোজ টিকার প্রথম চালান হাতে পাওয়ার পর সব জেলায় একসঙ্গে টিকাদান কার্যক্রম শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

প্রাথমিকভাবে স্বাস্থ্যকর্মীদের কিছু টিকা দিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হবে। এক সপ্তাহ পর সব জেলায় শুরু করা হবে। এটাই আমাদের পরিকল্পনা।

সবকিছু ঠিক থাকলে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে মাঠ পর্যায়ে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেজন্য আগামী ২৬ জানুয়ারি থেকেই অনলাইনে নিবন্ধন শুরু হবে।


আরোও পড়ুনঃ আপনার সন্তানকে যেভাবে স্ট্রেস ফ্রী রাখবেন


স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, টিকা প্রয়োগের বিস্তারিত পরিকল্পনা করতে মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের নেতৃত্বে একটি সভা হবে, সেখানেই সব চূড়ান্ত হবে।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্ত হয়। গতকাল পর্যন্ত ৫ লাখ ২৮ হাজার ৩২৯ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৯২২ জনের। করোনায় সংক্রমিত হয়ে সুস্থ হয়েছেন ৪ লাখ ৭৩ হাজার ১৭৩ জন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
%d bloggers like this: