শিক্ষাঙ্গন

বিদেশে স্কলারশীপ এর জন্যে প্রিপারেশন

প্রথম পর্বে স্কলারশিপ এর মান এবং সত্যায়িত প্রসঙ্গে লিখেছিলাম, সাধারনত আমাদের দেশে এইএসসি/আলিম পাস করে স্টুডেন্টসরা মেডিকেল/ইঞ্জিনিয়ারিং /পাব্লিক ভার্সীটির জন্যে প্রিপারেশন নিয়ে থাকে।

বিদেশে পড়তে যেতে হবে এরকম মনোভাব শুরু থেকে খুব কম স্টুডেন্টসদের থাকে, মেক্সিমাম ক্ষেত্রে দেখা যায় পাব্লিক এ কোথাও চান্স না হলে, বাহিরে পড়তে যাওয়ার একটা প্রবনতা দেখা যায় সবার মধ্যে,বিশেষ করে আমাদের দেশে চায়না স্কলারশিপ এর রমরমা পোস্টার তো চোখে পড়ার মত।

পুতুল এজেন্ট সেজে বসে আছে আপনাকে কনভেন্স করার জন্যে, কিছুদিন আগে দেখলাম একটা গ্রুপ থেকে তুরস্ক স্কলারশিপ নিয়ে সেমিনার হচ্ছে ২৫০ টাকা চাদা নিয়ে, আসলে এটা কি শিক্ষা মূলক সেমিনার নাকি ব্যাবসা বুঝলাম না, সেমিনার করলে সেখানে চাদা লাগবে কেনো আমার বুঝে আসেনা।

এই পর্বে আলোচনা করবো পেপারস রেডি করা নিয়ে, আরেকটি বিষয় হচ্ছে, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ন্যাশনাল এ পড়লে যে আপনার লাইফে কিছু হবেনা বিষয় টা এমন নয়, ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অনার্স,বিএসসি করেও ইউকে,ইউএসের মত জায়গায় ফুল ফান্ড স্কলারশিপ নিয়ে স্টাডি করতেছে এরকম ভুরি ভূরি প্রমান রয়েছে, যাইহোক যাদের বাহিরে স্কলারশিপ/সেলফ ফিনেন্সে পড়তে যাওয়ার ইচ্ছে তাদের সুবিধার জন্যে কিছু কথা বলবো।

আসল ব্যাপারটা হচ্ছে কেউ যদি চায় আমি এটা করবোই চেস্টা করলে দুদিন আগে বা পরে আল্লাহ তাকে সেটা দেয়, বাহিরে যদি স্কলারশিপ এ যাওয়ার ইচ্ছে থাকে তাহলে সর্ব প্রথম আপনার ইংরেজি তে বেসিক টা ঠিক করুন কারন মেক্সিমাম স্কলারশিপ এর ইন্টারভিউ আপনাকে ফেস করতে হতে পারে, তাই হায়ার সেকেন্ডারি এক্সাম দেওয়ার আগে থেকে ইংরেজি বেসিক ঠিক করুন যাতে এক্সাম এর পরে ইউনিভার্সিটি প্রিপারেশন এর সাথে আইইএলটিএস টাও দিতে পারেন।

আইইএলটিএস এর প্রস্তুতি নেওয়ার পাশাপাশি বাকি সমস্ত পেপারস রেডি করুন ধাপে ধাপে, যেসব পেপারস মেন্ডাটরি সে সমস্ত পেপারস কিভাবে রেডি করবেন ডিটেইলে তুলে ধরলাম আমার অভিজ্ঞতা অনুযায়ী

পাসপোর্টঃ
পাসপোর্ট করে ফেলুন, অনলাইনেই নিজেই ফরম পূরন করুন বা যেভাবে আপনার সুবিধে হয় করে ফেলুন,পাসপোর্ট পেতে ২ দিন থেকে ৩০ দিন পর্জন্ত আলাদা আলাদা ভাবে করা যায়, এখন নতুন যারা পাসপোর্ট করবেন তারা ই-পাসপোর্ট করতে পারেন।

স্মার্ট কার্ড, জন্ম নিবন্ধন, আইডি কার্ডঃ
স্মার্ট কার্ড, জন্ম নিবন্ধন (ইংরেজি কপি) নিয়ে রাখুন, ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা থেকে, ক্লাসের আইডি কার্ড ও স্কেন করে রাখবেন।

একাডেমিক সার্টিফিকেট এবং ট্রান্সক্রিপ্টঃ
এস,এস,সি,/দাখিল/এইএসসি/আলিম/ডিপ্লোমা/ডিগ্রি/ফাজিল/কামিল/অনার্স/মাস্টার্স/এবং কওমি মাদ্রাসার সনদ।

সকল একাডেমিক সার্টিফিকেট এবং ট্রান্সক্রিপ্ট মিনিস্ট্রি পর্জন্ত কমপ্লিট করে রাখুন যদিও মিনিস্ট্রি পর্জন্ত এটেস্টেড বাধ্যতামূলক নয়, তবে কিছু দেশের স্কলারশিপ এর জন্যে বাধ্যতামূলক যেমন রাশিয়া,রোমানিয়া,জাপান, এবং ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ এর ক্ষেত্রে, যেমন যারা সৌদি আরবের বিভিন্ন ইউনিভার্সিটিতে এপ্লাই করতে চান তারা মিনিস্ট্রি করে তারপরে এপ্লাই করবেন তাহলে নমিনেশন হওয়া অনেকটাই সহজ হয়ে যায় অন্যদের তুলনায়।

রেকোমেন্ডেশন লেটার/রেফারেন্স লেটার/ তাস্কিয়াঃ
নিজ ইন্সটিটিউট থেকে নিবেন অথবা পরিচিত প্রফেসর বা এসিস্টেন্ট প্রফেসর থেকে, তাও না সংগ্রহ করতে পারলে যেকোনো ইন্সটিটিউট বা প্রফেসর থেকে নিলেও হবে, অথবা এম,বি,বিএস ডক্টর বা মেজর, বা যেকোনো সচিব/উপসচিব থেকে নিলেও হবে, আমাদের দেশে অনেক ভার্সিটির পেড থাকেনা সমস্যা নেই এটাতে।

আবার দেখা যায় অনেক কলেজ/ভার্সিটির টিচাররা এটা কি জিনিস তা বুঝেই না, বা বুঝালেও বুঝাতে চায়না ,আবার কেউ দিতে চাইলে বলে ইমেইল নে, আবার থাকলেও এক্টিভ না, নানান প্রব্লেম, এটা অহরহ দেখা যায়, তবে ভালো কিছু ইউনিভার্সিটি রয়েছে যাদের পেড রয়েছে, স্টুডেন্ট চাওয়ার সাথে সাথেই তারা রেডি করে দিয়ে দেয়, এখন যাদের এসব প্রব্লেম তাদের সহজ একটা সলুশন দিয়ে দেই, আপনার ফ্যাকাল্টি প্রফেসর/কলেজ/আপ্নার টিচার কে যেভাবেই হোক বুঝাবেন যে আপনার এই লেটার লাগবে প্রয়জনে একটি সেম্পল নিয়ে যাবেন, স্যার নিজ থেকে না দিলে আপনি কম্পিউটার দোকান থেকে টাইপ করে নিবেন এবং স্যার এর ইনফরমেশন লিখবেন সাথে ইমেইল এবং ফোন নাম্বার, স্যার এর ইমেইল না থাকলে স্যার কে বলে স্যার এর একটি মেইল খুলে দিবেন, যাতে আপনি সহ অন্য সবাইকেই স্যার সার্ভিস দিতে পারে।

শেষ কথাগুলো বলেছি গ্রামের কলেজ/ভার্সিটিগুলোর জন্যে, কারন এধরনের কেস প্রচুর পরিমানে পেয়েছি বাট সলুশন দিলেও অনেকে শেষ পর্জন্ত করতে পারেনি, তাই বাধ্যহয়ে আমাকেই প্রফেসর থেকে লেটার নিয়ে দিতে হত অনেককেই, বাট এখন আর সেই সুযোগ নেই।

তাস্কিয়াঃ এটা শুধু মাত্র আরাবিক কান্ট্রি গুলোতে স্টাডি করতে যাওয়ার জন্যে প্রয়জন হয়, যে সমস্ত শায়েখদের থেকে নিবেন তাদের কিছু নাম গ্রুপের একটি পোস্টে রয়েছে পিন করা, এটা আরাবিক হবে, মাদানি/আজহারি সহ অনেক স্কলাররা এই পেপারসটি দিয়ে থাকে, অনেক ইস্লামিক সংগঠন ও এটা দিতে পারে যাদের সাথে ইন্টারন্যাশ্নাল সংস্থা বা ইন্সটিটিউট এর সম্পর্ক রয়েছে
রেকোমেন্ডেশন লেটার/রেফারেন্স লেটার/ তাস্কিয়া প্রতিটা পেপারস এর ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে যে এই লেটার এ অবশ্যই ফোন নাম্বার, ইমেইল,টিচার এর পজিশন,ঠিকানা উল্লেখ থাকতে হবে।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স/মেডিকেল সার্টিফিকেটঃ

৭-১২ দিন লাগবে, আগে এটা লাগতো না বাট ইদানিং সচিবালয় থেকে মেক্সিমাম স্ক্লারশিপ গুলোর সার্কুলার দেওয়ার সাথে সাথে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চায় তাই এটাও রেডি রাখতে পারেন।

বিশেষ করে যারা চায়নাতে এ,বি,সি, বা অন্যান্য স্কলারশিপ এ নিজে এপ্লাই করতে চান তাদের এটা লাগবেই কারন আপনাকে ইউনিভার্সিটি বা প্রফেসর ইমেইল এ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স চাইবে লেটার পাঠানোর আগে, সব প্রফেসর বা ভার্সিটি চান না,তবে মেক্সিমাম প্রফেঃ চায়,তাই এটাও করে রাখতে পারেন।

এক্সট্রা কারিকুলাম এক্টিভিটিস/ প্রশংসাপত্রঃ
এসব পেপারস যত ধরনের আছে যে ভাষাতেই হোক সব স্কেন করে রাখবেন পাশাপাশি যদি কোনো স্কিল থাকে সেটা বানিয়ে নিবেন। যেমন কম্পিউটার কোর্স থাকলে যেখান থেকে করেছেন সেখান থেকে একটা লে্রটা বানিয়ে নিবেন, যত ধরনের সোশাল এক্টিভিটি্‌ এচিভম্যান্ট আছে এগুলা সংরক্ষন করবেন।

পাব্লিকেশন্স/থিসিস/রিসার্চ প্রোপোজালঃ
এগুলা থাকলে ভার্সিটিতে জমা দেওয়ার আগে নিজের কাছে কপি রাখবেন সেটা স্কেন বা প্রিন্ট যেভাবেই হোক, বিশেষ করে পাব্লিকেশন্স/থিসিস মাস্টার্স এর ক্ষেত্রে ফান্ড পেতে অনেক ইসি হয়।

মোটিভেশন লেটার/স্টাডি প্লান/স্টেটম্যান্ট অফ পারপাসঃ
সুন্দর ভাবে ১/২ পেজে লিখবেন এর বেসি যেন না হয়, কিভাবে লিখতে হয় তা জানতে গুগোল করুন হাজার হাজার সেম্পল পাবেন, টপিক ঠিক রেখে একটা লিখে রাখুন শুধু এপ্লাই এর ক্ষেত্রে সাব্জেক্ট/ইউনিভার্সিটি/লেখার ধরন হাল্কা চ্যাঞ্জ করে এটা দিয়েই সব জায়গায় এপ্লাই করবেন।

একটা কথা সবার উদ্দেশ্যে বলি, কারো আশায় বসে থাকবেন না যত পরিশ্রমী হবেন তত বরকত পাবেন কাজে, নিজে এপ্লাই করার ট্রাই করুন, কারোর আশায় না বসে থেকে আরো বেশি বেশি ভার্সিটি ওয়েব সাইট চেক করুন নিজের ফিল্ড খুজুন ধন্যবাদ।

Jahangir Kabir
Cairo University,Egypt
Faculty of Computers and Artificial intelligence

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close