জাতীয়

২৫ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ দেশের সব শপিং মল

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগামী ২৫ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত দেশের সব শপিং মল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি।

করোনাভাইরাস আতঙ্কে ক্রেতা না থাকায় দেশের সকল মার্কেট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি। তবে সুপার শপগুলো সহ ওষুধের দোকান, কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান এই নির্দেশনার আওতাভুক্ত থাকবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ সুপার মার্কেট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন।

গতকাল রোববার সন্ধ্যায় দোকান মালিক সমিতির পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সমিতির সভাপতি মো. হেলালউদ্দিন, মহাসচিব মো. জহিরুল হক ভূইয়া ও সিনিয়র সহসভাপতি তৌফিক এহেসান এক যুক্ত বিবৃতিতে জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের কারণে মার্কেট ক্রেতাশূন্য হয়ে পড়েছে।

তাছাড়া শ্রমিক-কর্মচারী ও মালিকদের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে আগামী ২৫ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সুপারশপ, সুপার মার্কেট ও মার্কেট বন্ধ থাকবে। কাঁচাবাজার, মুদি দোকান, ওষুধের দোকান ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলা থাকবে।

তবে করোনা আতঙ্কের মধ্যেও খোলা থাকবে সুপারশপ

দেশে করোনাভাইরাসের কারণে বর্তমান পরিস্থিতিতে জনসাধারণের খাদ্য ও নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের চাহিদা পূরণের জন্য বাংলাদেশ সুপার মার্কেট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন আগোরা, মিনা বাজার, স্বপ্ন, ইউনি মার্ট, প্রিন্স বাজার, ট্রাস্ট ফ্যামিলি, ক্যারে ফ্যামেলি-এর মতো সুপার শপগুলো খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অর্থাৎ আগামী ২৫ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সুপারশপগুলো খোলা থাকবে।

বিবৃতিতে দেশের এমন দুর্যোগপূর্ণ সময়ে অত্যাবশ্যকীয় দ্রব্যাদি সরবরাহে সুপার শপগুলো জনগণের পাশে থাকবে বলেও জানানো হয়। এর আগে রোববার দেশের সুপারমার্কেটগুলোসহ সকল দোকান বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়।

দোকান মালিক সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২৫ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত দোকানগুলো বন্ধ থাকবে। তবে, কাঁচাবাজার, ওষুধের দোকান এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলা থাকবে।

Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close